বিশুদ্ধ-বোকা আমি




যখন মরতে চাইলাম তখন
বললে থামো সে অধিকার তোমার নাই।
আবার যখন বাচতে চাইলাম তখন
বললে জীবনের অর্থ জানো? বিশুদ্ধ-বোকা!

স্বপ্নে দেখলাম আমি দৌড়োচ্ছি উদলা,
লাগামটাও ফসকা, পৌছেছি প্রায় কাছে
আর একটু হলেই ছোব স্বাধীনতা;
এ পুরস্কার আমার চাই জীব:কালে।
আকাশগঙ্গায় প্রতিধ্বনি “জোড়ে, আরো জোড়ে …”

নিঃশ্বাস জুড়ে বিষ যে সাপের
তার মুকুটে মুক্তোয় বাধা বিশ্বাস;
শুধু বিশ্বাসটা আনতে হবে ছিনিয়ে।
স্বপ্নে দেখলাম আমি খেলছি সে খেলা
বারবার খেলেছি, মরিনি তবে হেরেছি প্রতিবার।

তবুও আমার চোখ ভরা নেশা আকাশে ওড়া,
অপ্সরাদের আঁচলে পাতা ঝর্ণায় স্নান করা।
পড়ন্ত বিকেলে দূরের দ্বিপ যখন সূর্য খায় গিলে
তুমি বললে যাবে ওখানে স্বাধীনতা কুড়াতে?
আমার উত্তর ছিল – যাব; বিশ্বাস করি তোমাকে।

কি বড্ড বেহায়া লোভি আমি, তাই না?
অর্থহীন জীবনের সুন্দর অর্থ খুজতে রইলাম
ঢেউয়ে ঢেউয়ে সাগরের তীরে ঝিনুক খুজলাম
এই ভেবে যদি একটা ঝিনুক দাও এনে।
তুমি বললে পরের জীবনে অজস্র পাবে, থামোতো।

মানলাম ইচ্ছেরা সব তোমার, দায়গুলো আমার
এক জীবনের হালখাতা আরেক জীবন পরে
কেবল সত্য এই তা শুধরাবে না এক কপালে।
অর্থ ছারা সুন্দর তুমি কোথায়, সত্য জানি নে
শুধু বল অর্থ কি তোমায় আনন্দ দিয়ে বাচার?

কলমে – ঈষদ


About Author /

Start typing and press Enter to search