সাহিত্য, শিল্পকলা ও বিষয়ভিত্তিক যে কোনো লেখা, যেমন : গল্প, কবিতা, প্রবন্ধ, এবং আপনার তথ্যমূলক কিংবা বিতর্কমূলক ভাবনা প্রভৃতি পাঠাতে চাইলে সর্বনাম-এর নিচের ইমেইল ঠিকানায় লেখা সংযুক্ত করে পাঠিয়ে দিন। লেখার সঙ্গে অবশ্যই নাম, ঠিকানা ও যোগাযোগ নম্বর দিতে হবে; তবে লেখক চাইলে ছদ্দনামেও লেখা পাঠাতে পারবেন।

লেখা পাঠানোর ইমেইল – [email protected]

সর্বনাম সবরকম সৃজনশীল লেখা প্রকাশ করে থাকে । লেখা সর্বনাম কর্তৃক বিবেচিত হলেই তা প্রকাশ করা হবে। লেখা পাঠানোর আগে নিচে দেওয়া লেখা পাঠানোর নিয়মাবলী জেনে নিন ।  

লেখা পাঠানোর নিয়মাবলী

১। লেখার আকার ও বিষয়বস্তু নিয়ে কোন বাধ্যবাদকতা নেই। তবে খুব ছোট লেখা, দুই/তিন লাইনের খুব ছোট কবিতা, এলোমেলো গল্প বা সামাজিগ মাধ্যমের পোস্ট প্রকাশ করাকে কখনোই উৎসাহিত করা হয় না।

২। মানবতাবিরোধী, বর্ণবাদী, লিঙ্গবৈষম্যবাদী,  প্রোপাগান্ডামূলক, স্বাধীনতাবিরোধী, জাতিবিদ্বেষী কিংবা মৌলবাদী কোন লেখা প্রকাশিত হবে না।

৩। ধর্মীয় কিংবা রাজনৈতিক আদর্শ নিয়ে লিখতে পারেন তবে এগুলোর একপাক্ষিক প্রচারণা উৎসাহিত করা হবে না।

৪। লেখায় অতিরিক্ত বানান ভুল থাকলে লেখা প্রকাশ করা হবে না কিংবা লেখা সরিয়ে ফেলা হবে।

৫। বাংলা ও ইংরেজি শব্দের মিশ্রণের প্রতি সতর্ক হতে হবে। অতিরিক্ত “বাংলিশ” ধরনের হেয়ালি লেখা প্রকাশ করা হবে না কিংবা লেখা সরিয়ে ফেলা হবে।

৬। লেখা পাঠাতে হবে ইউনিকোড ফরম্যাটে (অভ্র কী বোর্ড ব্যবহার করে লিখে একটি .txt বা .docx ফাইল হিসেবে। । PDF ফরম্যাটে লেখা পাঠালে সেটি গৃহীত হবে না।

৭। মেইল বডিতে লেখা কপি -পেস্ট করে বা লিখে পাঠালে সেই লেখা গৃহীত হবে না।

৮। একসঙ্গে একাধিক লেখা মেইল করে পাঠানোর ক্ষেত্রে, পর্যায়ক্রমে লেখাগুলো প্রকাশ পড়া হবে।

৯। সিরিজ বা পর্ব ভিত্তিক লেখা হলে সবগুলো পর্ব একসাথে পাঠাতে হবে।

স্বত্বাধিকার

১। ‘সর্বনাম’ একটি পুরোপুরি অবাণিজ্যিক উদ্যোগ। সর্বনামে কোনোও লেখার জন্যই লেখককে সাম্মানিক অর্থমূল্য দেওয়া হয় না।

২। সর্বনাম-এ প্রকাশিত সকল লেখার স্বত্ব লেখকের।

৩। সর্বনাম-এ প্রকাশিত প্রতিটি লেখা নিজস্ব ওয়েবসাইট (sorbanam.com), সোশ্যাল মিডিয়া বা পত্রিকায় প্রকাশ করা, পোস্ট করা বা ছাপানোর অধিকার প্রদানে সম্মতি রেখে লেখা পাঠাতে হবে।

৪। লেখককে অবশ্যই তাঁর নিজের লেখা পাঠাতে হবে। অন্য লেখক বা তথ্যের ভিত্তিতে লিখলে অবশ্যই তথ্যসূত্র উল্লেখ করতে হবে। অন্যথায় সেটা প্লাগারিজম তথা সাহিত্যচুরি বলে বিবেচিত হবে।

৫। তথ্যমূলক লেখার শেষে বিষয়ের সূত্র (বই/ইন্টারনেট) লিখে দিতে হবে। তথ্যমূলক লেখার সঙ্গে ছবি দিতে হলে সেগুলি অবশ্যই কপিরাইট -ফ্রি হতে হবে। ইন্টারনেটের অন্য কোন ওয়েবসাইট থেকে ছবি ব্যবহার করলে সূত্র জানাতে হবে। অন্যথায় সেটা প্লাগারিজম তথা সাহিত্যচুরি বলে বিবেচিত হবে।

৬। অন্যত্র প্রকাশিত লেখা পাঠাবেন না, কিংবা জানিয়ে পাঠাবেন। অন্যত্র প্রকাশিত লেখা  গুরুত্বপূর্ণ মনে হলে তা পূর্বের প্রকাশের তথ্য (প্রকাশক- বই, পত্রিকা, ওয়েবসাইট, সংখ্যা, সময়) উল্লেখ করে পাঠাতে হবে।   

৭। একই সঙ্গে একাধিক ওয়েব বা মুদ্রিত পত্রিকায় একই লেখা পাঠাবেন না। যদি নিতান্তই পাঠাতে চান, আমাদের মেইল করে সেটা জানাতে হবে।

৮। লেখকেরা মূল নামে কিংবা যে কোন ছদ্দ-নাম দিয়ে লেখা প্রকাশ করতে পারবেন। লেখা প্রকাশে গোপনীয়তা সম্পর্কীয় লেখকের প্রয়োজনীয়তা বা ইচ্ছাকে প্রধান্য দেয়া হবে।